Alexa

সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বাড়ায় চর জেগে ওঠার হার বেশি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বক্তব্য দেন চুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) ‘জলবায়ু পরিবর্তন ও সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির ফলে বাংলাদেশের উপকূলবর্তী অঞ্চল শনাক্তকরণ’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরকৌশল বিভাগ এ সেমিনারের আয়োজন করে। বুধবার (১৬ মে) পুরকৌশল বিভাগের সেমিনার কক্ষে সেমিনার উদ্বোধন করেন চুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে অ্যাকাডেমিক পাঠদানের পাশাপাশি গবেষণার তীর্থস্থান। জলবায়ু পরিবর্তন ও বৈশ্বিক উষ্ণায়ন নিয়ে সমগ্র বিশ্ববাসী এখন উদ্বিগ্ন। বাংলাদেশ ভৌগোলিক অবস্থানগত কারণেই ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। বিশেষ করে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার থেকে সাতক্ষীরা পর্যন্ত বিস্তৃত উপকূলীয় অঞ্চল। কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে গবেষণাধর্মী বক্তব্যের চেয়ে জনশ্রুতিনির্ভর আলোচনা অনেক সময় বেশিই হয়ে থাকে।

সেমিনারে গবেষণা কার্যক্রম নিয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পুরকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. রিয়াজ আকতার মল্লিক।

সেমিনারে জানানো হয়, সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বাড়ায় ভূমি তলিয়ে যাওয়ার বিষয়ে তেমন বড় ধরনের কোনো পরিবর্তন দেখা যায়নি। বরং ভূমি তলিয়ে যাওয়ার তুলনায় নতুন করে ভূমি অথবা চর জেগে ওঠার হার তুলনামূলক বেশি।

পুরকৌশল বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. মইনুল ইসলামের সঞ্চালনায় সেমিনারে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী।

বক্তব্য দেন নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের প্রভাষক কেএম আশরাফুল ইসলাম।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২০ ঘণ্টা, মে ১৬, ২০১৮
এমআর/টিসি

মুক্তামনি আর নেই
দুই প্রজাতির মিষ্টি বাঙ্গি উদ্ভাবনে অভাবনীয় সাফল্য
দু’দেশের ঐতিহাসিক বন্ধন-মৈত্রীর প্রতীক ‘বাংলাদেশ ভবন’
মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার সিন্ডিকেট মুক্ত করার দাবি
বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে শিক্ষার্থীদের সতর্ক করলো ইউজিসি