Alexa

যা চেয়েছি বাজেটে তা পাইনি: ডিসিসিআই

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন ডিসিসিআই সভাপতি আবুল কাসেম খান। ছবি শাকিল আহমেদ

ঢাকা: প্রস্তাবিত ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের বাজেটে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্ট্রি (ডিসিসিআই) ৪১টি প্রস্তাব দিলেও এর মাত্র চার-পাঁচটি রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ এ সংগঠনটি। 

ডিসিসিআই’র মতে, বাজেটে যা চাওয়া হয়েছে তা পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার (৭ জুন) ঢাকা চেম্বারে প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় এ তথ্য জানানো হয়।

ডিসিসিআই সভাপতি আবুল কাসেম খান বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটে বন্দর, লোকাল ইন্ডাস্ট্রির ক্ষেত্রে কিছুটা সুযোগ দেওয়া হয়েছে, এজন্য আমরা সরকারকে সাধুবাদ জানাই। আমরা সরকারের কাছে অনেক প্রপোজাল দিলেও তার ১০ ভাগই আসেনি। আমরা সরকারের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, এনবিআর ও অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করবো। আমরা বিশ্বাস করি, ব্যবসায়ীদের কথা বিবেচনায় রাখবে সরকার।

তিনি বলেন, আমরা করপোরেট ট্যাক্স ও ইনকাম ট্যাক্সে ছাড় চেয়েছি, কিন্তু পাইনি। তবে ব্যাংক ও ফাইন্যান্স সেক্টরে করপোরেট ট্যাক্স দুই দশমিক পাঁচ শতাংশ কমানো হয়েছে। এটাকে আমরা সাধুবাদ জানাই। আমরা চাই, অন্যান্য সেক্টরেও ট্যাক্স কমানো হোক।

প্রস্তাবিত বাজেট ব্যবসা বান্ধব কি না জানতে চাইলে ডিসিসিআই সভাপতি আবুল কাসেম বলেন, অবশ্যই ব্যবসা বান্ধব বাজেট। এখানে ব্যবসায়ীদের জন্য অনেক ছাড় দেওয়া হয়েছে। মোটরসাইকেল ইন্ডাস্ট্রি ও মোবাইল ফোন কোম্পানির জন্য বিশেষ ছাড় দেওয়া হয়েছে। সব তো আর দেওয়া সম্ভব না। তারপরও আমরা সরকারের কাছে যে প্রস্তাব দিয়েছি সেটা নিয়ে বসতে চাই। 
নির্বাচনী বছরের এ বাজেটকে তিনি উচ্চাভিলাসী বাজেট বলতে নারাজ। তিনি বলেন, ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের বাজেট সরকারের ধারাবাহিক বাজেটেরই একটি অংশ। 

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫২ ঘণ্টা, জুন ৭, ২০১৮
ইএআর/এসআই

ছাগলনাইয়ায় ট্রাক-মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে নিহত ৬
যশোরে ভিজিএফ’র চাল পাচার রুখে দিলো জনতা
ব্যবসা গুটিয়ে নিচ্ছেন সিলেটের চামড়া ব্যবসায়ীরা!
কেরালার বন্যায় রেড অ্যালার্ট প্রত্যাহার, নিহত ২৪৫
পরোক্ষ ধূমপানে বাড়ে শিশুদের ফুসফুসজনিত রোগের ঝুঁকি