Alexa

ছড়া-গানে মন রঙিন শিশুদের

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

‘নববর্ষে মাতো ছড়াগানে প্রতিযোগিতা’য় পুরস্কারপ্রাপ্ত শিশুরা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: শিশু শিল্পীরা এখন তৈরি করছে নানান ধরনের শিল্পকর্ম। তারা যেমন ছবি আঁকছে, তেমনি নির্মাণ করছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। নানা রকমের সৃজনশীল কাজে বড়দের পাশাপাশি এগিয়ে আছে তারা। তাই সব শিশুর মাঝে শিশুদের নির্মিত ও পরিবেশিত এসব অনুষ্ঠান ছড়িয়ে দিতে হবে। 

শনিবার (৫ মে) বিকেলে বাংলাদেশ শিশু একাডেমি মিলনায়তনে আয়োজিত ‘নববর্ষে মাতো ছড়াগানে’ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাসিমা বেগম এসব কথা বলেন। 

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান ও প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন। এতে স্বাগত বক্তব্য দেন একাডেমির পরিচালক ও বিশিষ্ট ছড়াকার আনজীর লিটন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন শিশু সাহিত্যিক আলী ইমাম।

প্রধান অতিথি নাসিমা বেগম বলেন, আজকের শিশু আগামীর ভবিষ্যত। একটি দেশের পরিচিতি বৃদ্ধি পায় সেদেশের কৃষ্টি-কালচার, সংস্কৃতির মাধ্যমে। আমাদের দেশের শিশুরাও এ অঙ্গনে এগিয়ে আছে। এখন আমাদের পথ শিশুসহ সকল শিশুর প্রতি সমান দৃষ্টি-ভঙ্গি নিয়ে কাজ করতে হবে।

সেলিনা হোসেন বলেন, শিশুদের মন রঞ্জিত করার জন্য ছড়াগানের অনুষ্ঠান আয়োজন একান্ত প্রয়োজন। ছড়া শিশুদের ভাষা, শারিরিক, মানসিক, মেধা ও মনন বিকশিত করে।

অনুষ্ঠানের চূড়ান্ত পর্বে বিজয়ী শিশুদের হাতে সনদপত্র ও ক্রেস্ট তুলে দেন অনুষ্ঠানের অতিথিরা। এর আগে দেশের ৮ টি বিভাগে বয়সভিত্তিক ৩ টি গ্রুপে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। 

শনিবারের আয়োজনে প্রতিটি বিভাগের প্রথমস্থান অধিকারী মোট ২৪ জন শিশু প্রতিযোগীদের নিয়ে সম্পন্ন হয় চূড়ান্ত পর্বের এ আয়োজন।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান শেষে শিশু শিল্পীদের পরিবেশনায় পরিবেশিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

বাংলাদেশ সময়: ২১০০ ঘণ্টা, মে ০৫, ২০১৮
এইচএমএস/এমএ

খেলা দেখতে ব্রাজিল-বাড়িতে ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত
টেকনাফে ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা আটক
ফের তালেবান হামলায় ১৬ আফগান পুলিশ নিহত
কলমাকান্দায় গৃহবধূ খুন
কক্সবাজারে সাগরে গোসলে নেমে পর্যটকের মৃত্যু