Alexa

দৌলতপুরে অ্যানথ্রাক্স রোগে ১০ জন আক্রান্ত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

অ্যানথ্রাক্সে আক্রান্ত রোগীরা

কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার পল্লীতে গরুর মাংস খেয়ে অন্তত ১০ জন অ্যানথ্রাক্স রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

এরা হলেন- আয়েন উদ্দিনের ছেলে শামিউল (৩০), শফিউলের ছেলে সোহেল (২৬), কামালের মেয়ে তানিয়া (২০), মজেরের ছেলে মনি (২৬), রবিউলের স্ত্রী টুনুয়ারা (৩৮), সিরাজের স্ত্রী আনুরা (৩৫), আরজের স্ত্রী ফরিদা (২৮) ও তাছলীসহ (২৫) অন্তত ১০ জন। এদের মধ্যে- সোহেলের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা যায়, উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের পচামাদিয়া কুঠিপাড়া গ্রামের মৃত রমজান আলীর ছেলে কামাল উদ্দিনের অসুস্থ একটি গরু ১৫/১৬ দিন আগে জবাই করে সেই গরুর মাংস স্থানীয়দের কাছে বিক্রি করেন। ওই মাংস খাওয়ার পর থেকে তারা আক্রান্ত হন।

এদিকে আক্রান্তের স্বজনরা জানিয়েছেন, এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের কিছু না জানানোর জন্য উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম নিষেধ করে গেছেন।

এ অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, এ রোগের যাতে বিস্তার না ঘটে সে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

দৌলতপুর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. অরবিন্দু পাল বাংলানিউজকে জানান, আক্রান্ত কয়েকজনকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৭, ২০১৮
এনটি

আবারো বিতর্কে জড়ালেন কঙ্গনা
সাত মরদেহের শেষকৃত্য সম্পন্ন, মামলা হয়নি
সুদের পাওনা টাকার জের ধরেই গৌরাঙ্গকে হত্যা করা হয়
ঈদের আগে জামিন মিললো ৪২ শিক্ষার্থীর
বাজপেয়ীর মৃত্যুতে ত্রিপুরায় মাসব্যাপী কর্মসূচি