Alexa

গর্ভবতী নারী রোজা ভাঙতে পারবে কি?

ইসলাম ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

অপার মহিমার রমজান

অপার মহিমার মাস রমজান। আত্মশুদ্ধি-আত্মগঠনের এ মাসে মহান আল্লাহ তায়ালার সন্তোষ অর্জনের জন্য ইবাদত-বন্দেগিতে মশগুল থাকেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা। রমজান মাসকে সঠিকভাবে পালনে করণীয় ও বর্জনীয়সহ নানা বিষয়ে জানার থাকে মুসল্লিদের। 

এজন্য মাহে রমজানে বাংলানিউজের বিশেষ আয়োজন ‘আপনার জিজ্ঞাসা’।এই আয়োজনের মাধ্যমে (bn24.islam@gmail.com ঠিকানায় ইমেইল করে) পাঠক তার রমজান বিষয়ক প্রশ্ন করে জেনে নিতে পারেন উত্তর। পবিত্র কোরআন ও হাদিস শরিফের আলোকে পাঠকের জিজ্ঞাসার উত্তর দেবেন বিশিষ্ট মুফাসসিরে কুরআন ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব মাওলানা সেলিম হোসাইন আজাদী।

মোসা. হাসিনা আক্তার, পাবনা। 
প্রশ্ন: দুগ্ধ দানকারিণীর রোজার ব্যাপারে জানতে চাই?
উত্তর: দুগ্ধ দানকারিণী মা রোজা রাখলে যদি সন্তান দুধ না পায় আর ওই সন্তান অন্য কোনো খাবারেও অভ্যস্ত না হয়; ফলে দুধ না পাওয়ার কারণে সন্তানের মৃত্যুর বা মারাত্মক স্বাস্থ্যহানির আশঙ্কা হয় তাহলে তিনি রোজা ভাঙতে পারবেন এবং পরে কাজা করে নেবেন। (রদ্দুল মুহতার ২/৪২২)
 
হাদিস শরিফে ইরশাদ হয়েছে, ‘আল্লাহ তায়ালা মুসাফিরের জন্য রোজার হুকুম শিথিল করেছেন এবং আংশিক নামাজ কমিয়ে দিয়েছেন। আর গর্ভবতী ও দুগ্ধ দানকারিণীর জন্যও রোজার হুকুম শিথিল করেছেন। (জামে তিরমিজি ১/১৫২, হাদিস: ৭১৫)

রেশমা আক্তার, খাগড়াছড়ি। 
প্রশ্ন:
ইস্তিহাযা নারীর রোজা রাখার অনুমতি আছে কি?
উত্তর: ইস্তিহাযা (অসুস্থতাজনিত কারণে দেখা দেওয়া স্রাব, নিয়মিত পিরিয়ডকালীন সময়ের বেশি সময়ে যা দেখা দেয়) অবস্থায় রোজা রাখা সহিহ ও জরুরি। রোজা না রাখার অনুমতি নেই।

তানিয়া খাতুন, নোয়াখালী। 
প্রশ্ন:
ইচ্ছাকৃতভাবে মাসিক বন্ধ রেখে রোজা রাখা যাবে কী-না?
উত্তর: প্রাপ্ত বয়স্ক নারীদের প্রতিমাসে মাসিক হওয়া আল্লাহ প্রদত্ত একটি প্রাকৃতিক নিয়ম। নিয়মিত মাসিক হওয়া স্বাস্থ্যের জন্যেও উপকারী। এজন্য ইসলামী শরিয়ত তাদের এ দিনগুলোতে রোজা না রাখার বিধান রেখেছে। এরপরও যদি কোনো নারী ওষুধ সেবনের মাধ্যমে মাসিক বন্ধ রাখেন তাহলে শরিয়তের পক্ষ থেকে কোনো প্রকার বাধা-নিষেধ নেই। 

তবে স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হওয়ায় এরূপ না করাই উত্তম। তা সত্ত্বেও যদি কেউ এমন ব্যবস্থা নেয়, তাহলে তার রোজা হয়ে যাবে। সূত্র: (আহসানুল ফাতাওয়া: ৪/৪২০, ফাতাওয়া দারুল উলুম: ৫/৪০৮, ফাতাওয়া দারুল উলুম: ৬/৪৭৮, আল বাহরুর রায়েক: ২/৪৪৯, ফতোয়ায়ে হক্কানি: ৪/১৫৮)

মোছা. মনোয়ারা বেগম, পল্টন, ঢাকা।
প্রশ্ন: গর্ভবতী নারী রোজা ভাঙতে পারবে কী?
উত্তর: রোজা রাখার কারণে গর্ভবতী নারী নিজের কিংবা সন্তানের প্রাণহানি বা মারাত্মক স্বাস্থ্যহানির প্রবল আশঙ্কা হলে তার জন্য রোজা ভঙ্গ করা জায়েজ। পরে এ রোজা কাজা করে নেবে। (আলমুহিতুল বুরহানি ৩/৩৫৯)

জবাব প্রদানে: মাওলানা সেলিম হোসাইন আজাদী
লেখক: বিশিষ্ট মুফাসসির কুরআন ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব।
চেয়ারম্যান: বাংলাদেশ মুফাসসির সোসাইটি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৩ ঘণ্টা, মে ৩০, ২০১৮
এমএ/

অসুস্থ ইরফানের পাশে শাহরুখ
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব হলেন ফয়েজ আহম্মদ
বিচ্ছিন্ন শিশুদের পরিবারে ফেরাবে মার্কিন সরকার
ট্রেনের গার্ডকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে কুলি সর্দার আটক 
বিশ্বকাপ ঘিরে সরগরম রুশ ডেটিং অ্যাপস